Bengali tips for skin open pores – বাড়িতে ত্বকের বড় রোমছিদ্র দূর করার উপায়

রোমছিদ্র আমাদের ত্বকের খোলা জায়গাকে বলে। এগুলো প্রায় আকারে ছোট হয় এবং ধ্যান দিয়ে দেখলে দেখা যায়। কিন্তু এগুলো কিছু স্থিতিতে বড় এবং খোলা হয়ে যেতে পারে, বিশেষ রূপে ওই ব্যক্তিদের মধ্যে যাদের ত্বক তৈলীয়। খোলা রোমছিদ্র সামান্য ত্বকের সমস্যা যেমন ফুসকুড়ি, ঐক্নী এবং কালো দাগের কারণ হয়।

এটা মনে রাখুন যে বন্দ রোমছিদ্র খোলার কোনো স্থায়ী চিকিসা নেই, কিন্তু কিছু ঘরোয়া উপায়ের সাহায্যে আপনি এগুলোর আকার কম করতে পারেন।

খোলা এবং বড় রোমছিদ্রের চিকিসার ঘরোয়া উপায় (Natural remedies to treat the open and enlarged pores)

  • একটা ডিম নিন এবং এটার সাদা ভাগ বের করে নিন। এটাকে কিছু মিনিট অব্দি ফেটান এবং ফ্রিজে রেখে দিন। এটাকে পাঁচ মিনিটের জন্যে ছেড়ে দিন আর এরপরে এতে লেবুর রসের কিছু ফোটা মিশিয়ে দিন। এই মিশ্রণ নিজের মুখে ভালো করে লাগান এবং কিছু মিনিট অব্দি ছেড়ে দিন। এই বিধি এক মাস পর্যন্ত ব্যবহার করুন এবং নিজের রোমছিদ্রের আকারে অন্তর লক্ষ্য করুন। এটা তৈলাক্ত ত্বকের রোমছিদ্রের আকার কম করার এবং ত্বক কে কসবার খুব আদর্শ একটা প্যাক।
  • এক চামুচ সিরকা, লেবুর রস, মধু ও দুই চামুচ তাজা মূলোর রস একটা বাটিতে মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণ এক গেলাস শুদ্ধ জলে ঢালুন এবং এই মিশ্রণটাকে একটা কাঁচের পাত্রে ঢেলে নিন। রোমছিদ্রের আকার কম করার জন্যে এটাকে নিজের মুখে একটা রুইয়ের সাহায্যে নিয়মিত রূপে লাগান। এটা একটা সহজ উপায় যেটা সবরকম ত্বকের ব্যক্তিরা ব্যবহার করতে পারে।
  • একটা শসা কিষুন এবং এটার রস বার করুন। এটার ২ চামুচ এক চামুচ গোলাপজলের সাথে মেশান এবং এটা রুইয়ের সাহায্যে নিজের মুখে লাগান।
  • এক চামুচ বেসন এবং দুই চামুচ দই মিশিয়ে একটা নরম পেস্ট তৈরী করুন। এই পেস্ট নিজের মুখের উপুরে লাগান এবং এটাকে ১৫ থেকে ২০ মিনিট অব্দি ছেড়ে দিন। এটাকে ঠান্ডা জল দিয়ে ধুয়ে নিন এবং একটা নরম কাপড় দিয়ে ত্বক মুছে নিন। এই প্যাক সপ্তাহে দুই বার ব্যবহার করুন এবং নিজের রোমছিদ্রের আকার কম করুন।
  • দুই চামুচ মুলতানি মাটি এবং দুই চামুচ গোলাপজলের মিশ্রনে তৈরী মিশ্রণ আপনার তৈলাক্ত ত্বকের বোরো রোমছিদ্রের চিকিসার জন্যে একটা ভালো উপায় সিদ্ধ হতে পারে। এই প্যাক নিয়মিত রূপে ব্যবহার করবেননা কেননা এতে আপনার ত্বক রুক্ষ হয়ে যেতে পারে।
  • একটা পাকা পেঁপে নিন এবং ইটা পিষে নিন। এটা দিয়ে একটা পেস্ট তৈরী করুন এবং নিজের মুখে ভালো করে এটা লাগান। এটা নিজের মুখের ওই ভাগে লাগান যেখানে খোলা রোমছিদ্রের সংখ্যা বেশি। এটা আধা ঘন্টার জন্যে ছেড়ে দিন এবং হাল্কা গরম জল দিয়ে ধুয়ে নিন। এটা রোমছিদ্র কে কষে দেয এবং আপনার ত্বকের মাংসপেশি কে নমনীয়তা দেয়। পেঁপে তে যুক্ত অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট (antioxidant) ত্বকের বিন্যাস ভালো করে এবং এটার মেরামত ও করে।
  • আপেলের সিরকা একটা প্রাকৃতিক অস্ট্রিঞ্জেন্ট (astringent) হয় এবং আপনার ত্বক কে টোন (tone) ও করে। এটাকে জলের সাথে মেশান এবং এই মিশ্রনে একটা রুইয়ের কাপড় ডুবিয়ে দিন। এই রুই দিয়ে নিজের মুখে এই লেপটা লাগান এবং ২০ মিনিটের জন্যে ছেড়ে দিন। এটাকে ধুয়ে নেওয়ার পর আপনি অনুভব করবেন যে আপনার রোমছিদ্র ছোট হয়ে গেছে। এটার জীবাণুরোধী গুণ ঐক্নী এবং অন্য জীবাণুর আক্রমণ থেকে আপনার ত্বকের রক্ষা করে। এতে আপনার রোমছিদ্র ছোট হয়ে যায় এবং ত্বকের পিএইচ (pH) সমতা এক সমান থাকে।
  • বেকিং সোডা ও আপনার ত্বকের রোমছিদ্রের জন্যে খুব ভালো হয়। নিজের মুখ থেকে তে এবং ময়লা দূর করতে এবং রোমছিদ্র ছোট করার জন্যে এটা ব্যবহার করুন। বেকিং সোডা কে জল দিয়ে মেশান এবং একটা লেপ তৈরী করুন। এটা দিয়ে নিজের মুখের মালিশ করুন। ভালো করে লাগানোর জন্যে গোলাকার মুদ্রায় মালিশ করুন। এরপরে সামান্য জল দিয়ে ধুয়ে নিন। এটা নিয়মিত রূপে এক সপ্তাহের জন্যে ব্যবহার করুন এবং আপনি পাবেন যে আপনার রোমছিদ্র ছোট হয়ে গেছে আর ত্বকে কোনো রকম জীবাণুর আক্রমণও হতে পারবেনা।
  • দুই চামুচ মুলতানি মাটি এবং দুই চামুচ গোলাপজল দিয়ে তৈরী লেপ ও আপনার তৈলাক্ত ত্বকের বড় রোমছিদ্র ছোট করতে অনেক লাভজনক হয়। এই প্যাক নিয়মিত রূপে ব্যবহার করবেন কেননা এটা আপনার ত্বক কে রুক্ষ করে দিতে পারে।