Bengali tips for hair fall – stop hair loss

চুল পড়ার কারণে লোকে অনেক বিরক্ত হয়। যত বার ওরা চিরুনি ব্যবহার করে, ওদের মাথা থেকে অনেক মাত্রায় চুল বেরিয়ে আসে। যদি এই ভাবে বেশি চুল পড়া শুরু হয় তো এটা অনেক চিন্তা ব্যাপারে পরিণত হতে পারে। নিয়মিত ভাবে চুল পড়তে থাকলে পুরুষেরা কেশহীন হয়ে যেতে পারে। আজকালকার দিন কালে এই সমস্যা কোনো এক বয়সের লোকের না, বরং ১৫ থেকে ৫০ বছর বয়স পর্যন্ত কাউকেও নিজের শিকার বানাতে পারে। স্নান করে বেরিয়ে আসার পর আপনার চুলে প্রচুর জল থাকে। যখন আপনি চুল শোখানোর জন্যে তোয়ালে ব্যবহার করেন, তো এতে অনেক চুল দেখা যায়। এই সমস্যা থেকে আপনাকে বাঁচানোর জন্যে কিছু ঘরোয়া উপায় নীচে দেওয়া রয়েছে।

চুল পড়া থামানোর উপায় (Bengali tips to prevent hair fall)

  • নিজের চুল নিয়ে যথেষ্ট সাবধান থাকুন। ভেজা চুযে চিরুনি ব্যবহার করা ক্ষতিকারক হতে পারে।
  • নিজের মাথার ভাগ ভালো করে এবং নিয়মিত মালিশ করুন যাতে এটা ঠিক ভাবে পোষিত হোক। মাথায় মালিশ করার ফলে রক্তের প্রবহন অনেক উন্নত হয়ে যাবে এবং আপনার চুলে স্বাস্থ্য ঝলকাবে।
  • নিজের মাথার উপরে চুল খোপার মতো করে বাঁধার স্টাইল (style) ব্যবহার করার থেকে দূরে থাকুন। এতে প্রত্যেক চুলের গোড়া খারাপ ভাবে প্রভাবিত হবেই এবং চুল ভাঙার ও পড়ার অনেক সম্ভাবনা থাকে।
  • আজকাল, লোকে নিজের চুল স্টাইল করার পেছনে অনেক কষ্ট করে। এরকম একটা ভালো চুলের স্টাইল করা আজকের সময়ে অনেক দরকার যা আপনাকে সুন্দর ও সবার থেকে আলাদা দেখায়। কিন্তু যেই আপনি বাড়ি ফেরত আসেন, আপনাকে নিজের চুলকে ভালো করে পোষিত কোরাতেধ্যান দেওয়া উচিত, যার জন্যে চুলে তেল লাগানো এবং এটার থেকে সব রকম জেল ও কসমেটিক্স (gels and cosmetics) বার করা অনেক দরকারী। চুলে বেশি তাপ ব্যবহার করাও উচিত হবেনা।
  • বাইরে আবহাওয়া অনেক ঠান্ডা থাকলেও নিজের চুল গরম জলে ধোবেননা। এটা চুল পড়ার আরেক বড় কারণ। জলের তাপ আপনার চুলকে শুকনো এবং ফিজী (fizzy)করে দেয়। এতে আপনার চুল কমজোর হয়ে যায়, যার ফলে চুল পড়ার সমস্যা হয়।

চুল পড়া থেকে বাঁচানোর জন্যে ঘরোয়া উপায় (hair loss control tips in Bengali)

নারকেলের দুধ (Coconut milk)

নারকেল থেকে প্রাকৃতিক ভাবে বের করা দুধ আপনার চুল পড়ার সমস্যা দূর করতে অনেক কাজে দেয়। ইটা গাছ থেকে প্রাপ্ত একটা পুষ্টিকর তত্ত্ব যা আপনার মাথার টিশূ (tissue) কে পোষিত করাতে সাহায্য করে। গুঁড়ো নারকেল পিষে এটার রস বার করুন, যার জন্যে এটাকে ভালো করে চিপুন। চুল পড়া থামানোর জন্যে ইটা দিয়ে নিজের মাথা ভালো করে মালিশ করুন।

নীমের চিকিৎসা (Neem treatment)

নীমের গাছ আপনার চুলের এবং ত্বকের জন্যে অনেক উপযোগী হয়। ইটা এন্টিসেপটিক (antiseptic) হয় এবং ভাইরাস ব্যাক্টেরিয়ার (virus & bacteria) প্রভাব খুব সহজে দূর করে। বাগান থেকে নীমের কিছু তাজা পাতা নিয়ে এগুলো ফোটান। ইটা অতক্ষণ অব্দি ফোটাতে হবে, যতক্ষণ জলের স্তর আধা এবং রং সবুজ না হয়ে যায়। এবার এটাকে ঠান্ডা করে নিজের চুলের গোড়া অব্দি ধীরে ধীরে ইটা ব্যবহার করুন।

আমলা (Amla)

অনেক বছর ধরে মহিলারা নিজের নিষ্প্রাণ এবং অসাস্থকর চুলের চিকিৎসার জন্যে আমলা ব্যবহার করে আসছেন। আপনি কিছু শোকানো আমলা নিন এবং এগুলো নারকেল টেলি ফুটিয়ে নিন। ইটা তখন অব্দি ফোটাতে থাকুন যতক্ষণ এটার রং গাঢ় কালো না হয়ে যায়। এই তেল নিজের চুলের গোড়া থেকে উপুর অব্দি ব্যবহার করুন। এটা চুল পড়া থামানোর প্রভাব উপায়ে অন্যতম।