Tan removal tips in Bengali – টান অপসারণ টিপস

সূর্য বেরোনোর সময় সমুদ্রের ধারে পরিবার ও বন্ধুদের সাথে আনন্দ করার সময় হয়। সূর্যের আলোয় প্রচুর আনন্দ করার পরেও দিনের শেষে প্রায় লোকজনের শরীরে বাজে দেখতে দাগ হয়ে যাহাকে সন টৈন বলা হয় এবং এগুলো শরীর থেকে দূর করার অনেক মুশকিল হয়। টৈন দূর করার জন্যে বাজারে অনেক রকম ক্রিম ও উপায় আছে, কিন্তু প্রায় উপায়ই আগে যেয়ে আপনার ত্বক কে ক্ষতি পৌঁছায়। প্রাকৃতিক উপায় আপনার ত্বক কে পোষিত করে ও আরাম দিয়ে ভালো করে টৈন দূর করে।

এখানে প্রশ্ন এটা যে টৈন কে পুরোপুরি দূর করা কি সম্ভব? প্রত্যেক মহিলার জন্যে এখানে একটা ভালো খবর আছে। যদি আপনার ত্বকে অস্বাভাবিক ভাবে টৈন পড়তে শুরু হয় তাহলে আপনি নীচে দেওয়া কিছু উপায় ব্যবহার করে এটা দূর করতে পারেন।

বেকিং সোডা স্ক্র্যাব (Baking soda scrub)

বেকিং সোডা কে জলের সাথে মিশিয়ে একটা পেস্ট তৈরী করুন এবং নিজের হাত বা অন্য প্রভাবিত ভাগ থেকে টৈন দূর করার জন্যে এটা স্ক্রাব হিসেবে ব্যবহার করুন। যদি আপনি অনেক তারাতারি নিজের টৈন সারাতে চান তাহলে এই বিধি এক দিন ছেড়ে ছেড়ে ব্যবহার করুন।

সিরকা (Vinegar)

একটা পাত্রে সমান মাত্রায় সিরকা এবং জল নিন এবং এই দুটো কে ভালো করে মেশান। এরপরে নিজের হাত এই পাত্রে ডোবান এবং এই অবস্থায় ৫ সে ১০ মিনিট অব্দি থাকুন। এক বার সময় পুরো হলে নিজের হাত ঠান্ডা জল দিয়ে ধুয়ে নিন। আপনি ভালো পরিণাম পাওয়া অব্দি এই বিধি প্রায় রোজ ব্যবহার করতে পারেন।

মধু ও লেবুর রস (Honey & lime juice)

মধু ও লেবুর রসের একটা মিশ্রণ তৈরী করুন এবং নিজের টৈনযুক্ত ভাগে এটা লাগান। নিজের হাথে এই মিশ্রণ টা লাগিয়ে ১০ থেকে ১৫ মিনিট অব্দি রেখে দিন এবং এরপর ঠান্ডা জল দিয়ে এটা ধুয়ে নিন। এরপরে নিজের হাত সুতির তোয়ালে দিয়ে মুছতে ভুলবেননা।

লেবু ও শসার রস (Lime and cucumber juice)

লেবুর রস, শসার রস এবং গোলাপজল মমিশিয়ে নিন এবং টৈনযুক্ত ভাগে এটা ব্যবহার করুন। এই মিশ্রণ নিজের হাথে ১০ থেকে ১৫ মিনিট অব্দি থাকতে দিন এবং এরপরে ঠান্ডা জল দিয়ে ধুয়ে নিন। এই মিশ্রণ সূর্যের কঠিন টৈন ও সানবার্ন (sun burn)খুব সহজ দূর করে দেয়। লেবুর সাইট্রিক (citric) তত্ব ও গোলাপজলের ঠান্ডা করার গুন আপনার হাত থেকে খুব সহজে ও তীব্র ভাবে টৈন দূর করে। আপনি এই মিশ্রণ টা তৈরী করে এক সপ্তাহ মতন নিজের ফ্রিজে ও রেখে দিতে পারেন। লেবুর রসে একটা কাপড় ডুবিয়ে নিজের টৈনগ্রস্ত ভাগে রোগড়িয়ে নিন। এটার উপরে এক থেকে দুই মিনিট মালিশ করুন এবং ১০ থেকে ১৫ মিনিট অব্দি ছেড়ে দিন। যখন এটা পুরোপুরি শুকিয়ে যাবে, তখন নিজের হাত ঠান্ডা জল দিয়ে ধুয়ে নিন।

য়োগার্ট ও বেসন (Yogurt and gram flour)

বেসন, য়োগার্ট ও লেবুর একটা পেস্ট তৈরী করুন। এই সব উপাদের মাত্রা সমান হওয়া উচিত। এরপরে টৈনযুক্ত ত্বকের উপরে পেস্টটা লাগান। এটাকে ১০ মিনিট অব্দি ছেড়ে দিন। যখন এই মিশ্রণ পুরোপুরি শুকিয়ে যাবে তখন এটাকে হাল্কা গরম জলে ধুয়ে দিন।

হলুদ ও কাঁচা দুধ (Turmeric and raw milk)

আপনি কাঁচা দুধে এক চামুচ হলুদ ও লেবুর রস মিশিয়ে নিন। এগুলো ভালো করে মেশান এবং এরপরে টৈনযুক্ত ভাগে এটাকে লাগান। এরপরে এটাকে ১০ মিনিট অব্দি শুকাতে দিন ও সময় পুরো হওয়ার পর ঠান্ডা জলে ধুয়ে ফেলুন। এতে আপনার ত্বকের টৈন দূর হয়ে যাবে। আপনি নিয়মিত ভাবে নিজের হাথে নারকেল তেল লাগাতে পারেন এবং এটাকে শুকোতে দিতে পারেন। তাড়াতাড়ি পরিণাম পাওয়ার জন্যে আপনি এই বিধি দিনে একবার থেকে বেশি ব্যবহার করতে পারেন। এটা প্রাকৃতিক ভাবে আপনার হাত থেকে টৈন দূর করার খুব ভালো উপায়।

পেঁপের মণ্ড (Papaya pulp)

প্রভাবিত ভাগে ১০ মিনিট অব্দি পেঁপের মণ্ড দিয়ে মালিশ করুন এবং আরও ১০ থেকে ১৫ মিনিট অব্দি ছেড়ে দিন। এক বার যখন আপনার মনে হবে যে এটা শুকাতে লাগছে তো এটাকে ঠাণ্ডা জলে ধুয়ে ফেলুন।

Subscribe to Blog via Email

মুলতানি মাটি এবং সাদা লাউ (Multani mitti & white gourd)

আপনি মুলতানি মাটি এবং সাদা লাউয়ের পেস্ট বানিয়েও প্রভাবিত ভাগে লাগাতে পারেন। এরপর এটা ঠান্ডা জল দিয়ে ধুয়ে নিন। সাদা লাউ কেটে এটার মণ্ড বানান। এরপর এটাতে দুই চামুচ মুলতানি মাটি মেশান। এই দুটো ভালো করে মিশ্রিত করে নিন এবং নিজের টৈনযুক্ত মুখ, মাথা, হাত ও গলায় এটা লাগান। এটাকে শুকাতে দিন এবং ঠান্ডা জল দিয়ে ধুয়ে পরিণাম অনুভব করুন।