Bengali tips for curing ear pain – কানের সংক্রমণ দূর করার উপায়

চিন্তামুক্ত স্বাস্থ্যকর জীবন বজায় রাখার জন্যে স্বাস্থ্য় এবনহ স্বচ্ছতা অনেক জরুরি। কিন্তু তাও আমরা কোনো না কোনো ভাবে সংক্রমিত হয়েই থাকি। এটা জীবানুর আক্রমনের জন্যে হতে পারে। প্রায় আমতা নিজের শরীরে হঠাত একটা ব্যথার অনুভব করি। এই ব্যথা অনেক রকমের হয় যেরম কানের ব্যথা, জোড়ে ব্যথা বা দাঁতে ব্যথা। কানের ব্যথা প্রায়ই খুবই কম বয়সে দেখা যায়, কিন্তু আপনি বলতে পারেননা যে আপনার কানে কখন ব্যথা হবে। প্রায়ই কোনো ডাক্তারি চিকিত্সা বা অন্য ওষুধ ছাড়াই কান সামান্য ভাবেই সেরে উঠে। কিন্তু আবার কানের ব্যথা হউয়ার স্থিতির জন্যে তৈরী থাকা হেতু আপনার জন্যে এটার চিকিত্সা জেনে রাখা ভালো হবে।

ফার্মেসী তে উপলব্ধ ঔষধি (Medicines available in pharmacies)

এসীটামিনোফেন এবং আইব্রুফেন (Acetaminophen and ibuprofen) এরকম ওষুধ যা আপনি নিজের আশেপাশের কোনও ওষুধের দোকানে পেয়ে যাবেন। এইগুলো একিউট ওটিটিস মিডিয়া বা এওএমের (Acute Otitis Media or AOM) ফলে হউয়া ব্যথা কম করতে সাহায্য করে। আপনি বিনা কোনো এন্টিবাযোটিক্স (antibiotics) ব্যবহার না করেই এই ওষুধ গুলো খেতে পারেন। কিন্তু আপনাকে এটা নিশ্চিত করতে হবে যে ওষুধের লেবেলের উপরে লাখা নির্দেশ গুলির পালন করা হয়। এই ওষুধ কানের ব্যথার জন্যে আশা জর ও দূর করে দেয়।

এই ওষুধ গুলি ষোল বছর বয়সের কমের বাচ্চাদের দেবেননা।

নেচুরোপ্যাথিক ড্রপ্স (Naturopathic drops)

এই ড্রপ্স জড়িবুটির অংশ দিয়ে তৈরী করা হয়। আপনি খুব সহজে এগুলো ওষুধের দোকানে বা অনলাইন পেয়ে যাবেন। শোধে প্রমান হয়েছে যে কানের ড্রপে আয়ুর্বেদিক গুন থাকে যেটাতে অলিভ অইলের (olive oil) তত্ত্ব থাকে যা আপনার দ্বারা নেওয়া ওষুধের মতই বা তার চেয়েও প্রভাবই হবে।

টি ট্রি অয়েল (Tea tree oil)

টি ট্রি অইলের শক্তিশালী এন্টিসেপটিক, এন্টি ফাঙ্গাল (antiseptic, anti-fungal), জীবানুরোধী ও জলনরোধী গুন কানের ব্যথার সমস্যা একদম দূর করে দিতে পারে। ব্যথা ও কষ্ট দূর করার জন্যে নিজের কানে টি ট্রি অইলের ফোঁটা ব্যবহার করুন। ভালো পরিনামের জন্যে টি ট্রি অয়েল কে অলিভ অইলের সাথে ব্যবহার করুন।

ব্যায়াম করুন (Try exercise)

কানের ব্যথা কানের নলে পড়া অত্যাধিক চাপের জন্যও হতে পারে। কানের ব্যথার চিকিত্সা করার জন্যে, গলার কিছু ব্যায়াম করার চেষ্টা করুন। এতে কানের উপরের চাপ একটু কম হবে। এটার সবচেয়ে ভালো ব্যায়াম হলো গলা ঘোরানোর ব্যায়াম।

করার বিধি (How will you do it?)

  • একটা চেয়ারে সোজা হয়ে বসুন। নিজের পা মাটিতে ভালো করে টিকিয়ে রাখুন।
  • এবার নিজের মাথা এবং গলা নিজের ডান দিকে ঘোরানো শুরু করুন। টা তখন পর্যন্ত করুন যখন অব্দি আপনার মাথা ও গোলা আপনার কাঁধের সমান্তরালে না এসে যাচেছ।
  • এবার এটাকে আবার সামান্য স্থিতিতে আনুন এবং আবার এই প্রক্রিয়া অন্য দিক দিয়ে করুন।
  • এই বিধি রোজ ব্যবহার করুন।

লক্ষণ (Symptoms)

সামান্য রূপে লক্ষণ তিন রকম সংক্রমণের জন্যে হয় যা হলো:

  • জরের সাথে কানে ব্যথা
  • শোনার শক্তি চলে যাওয়া
  • কানে ব্যথা
  • কান থেকে দ্রব্য বেরোনো

কানের ব্যথা ঠিক করার উপায় (Steps you can take to cure ear ache)

অনেক বার ঘরোয়া উপায়ে অনেক কাজ হয় কিন্তু তাও এগুলো ব্যবহার করার আগে কোনো ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে নেবেন।

Subscribe to Blog via Email

ভেজা কাপড় (Wet Cloth)

আপনি একটা কাপড় হাল্কা গরম জলে ভিজিয়ে নিন এবং যেই কানে ব্যথা হচ্ছে তার চারপাশে লাগিয়ে নিন। আপনি নিজের দরকার হিসেবে কাপড়টা গরম বা ঠান্ডা জলে ডুবিয়ে রাখতে পারেন।

অলিভ অইলের ফোঁটা (Drops of olive oil)

এই তথ্যের কোনো পুষ্টি করা হয়না যে এই ড্রপে কানের ব্যথা ঠিক হয়, কিন্তু কানের ব্যথার স্থিতিতে এটার একটা সামান্য লাভ হয়। আপনি এই তেল গরম করে এটার কিছু ফোঁটা নিজের ওই কানে দিতে পারেন যেখানে ব্যথা হচ্ছে এবং আপনি খুব তাড়াতাড়ি আরাম পেয়ে যাবেন।

ভালো নিদ্রা (Proper sleeping)

মস্তিস্ক তেজ ও ভালো করে কাজ করার জন্যে শোয়ার মুদ্রার ভালো হওয়া খুবই জরুরি। আপনার জন্যে ভালো করে শোয়া দরকার। সবসময় অনেক গুলো বালিশের সাথে শোয়া প্রস্তাবিত করা হয়। আপনি নিজেকে সোজা রেখে একটা আর্মচেয়ারেও (arm chair) বিশ্রাম করতে পারেন।

কাইরোপ্রক্টরের কাছে সঠিক চিকিত্সা (Proper treatment in chiropractor)

আমাদেরকে অনেক বার কোনো রকম চিকিত্সা বা অন্য রকম সমস্যার জন্যে কাইরোপ্রক্টরের বা বৈদ্যর কাছে যেতে হয়। আপনি ওদের কাছে কানের ব্যথা বা সংক্রমণের চিকিত্সার জন্যেও যেতে পারেন।